1. [email protected] : editorpost :
  2. [email protected] : jassemadmin :

‘লেবাননে কোম্পানিতে বেতন কম, তাই সবজি ব্যবসা করি’

‘যা বেতন তা দিয়ে ভালোভাবে সংসার চলে না। তাছাড়া নিয়মিত টাকা দিতেও গড়িমসি করে এদেশের কফিলেরা (মালিক)। তাই সাপ্তাহিক ছুটির দিনে বসে না থেকে সবজির ব্যবসা করি। বাংলাদেশি সবজি লেবাননে ব্যাপক চলে। আমি মনে করি, কোনো কাজই লজ্জার নয়। সবজি ব্যবসায় লাভও বেশি আবার টাকাও নগদ আসে।’

লেবাননের বাণিজ্যিক এলাকা দাওড়ায় কোম্পানিতে কাজের পাশাপাশি সবজি ব্যবসা করে কিছু বাংলাদেশিরা। ছুটির দিনে দূর-দূরান্ত থেকে প্রবাসীদের আনাগোনায় মুখর হয়ে ওঠে দাওড়া বাজার। শনিবার ও রোববার এই বাজার প্রবাসীদের চাপে বেশ সরগরম থাকে।

ইন্ডিয়ান ও শ্রীলংকানরা সংখ্যায় বেশি হলেও ধীরে ধীরে প্রবাসী বাংলাদেশিরাও এই ব্যবসায় সম্পৃক্ত হচ্ছেন। বাড়তি টাকার আশায় তাদের নির্দিষ্ট কাজের অবসরে ব্যবসায় যুক্ত হয়েছেন বলে জানান বাংলাদেশি প্রবাসীরা আলাউদ্দিন।

তিনি বলেন, ‘কোম্পানিতে কাজ করছি কয়েক বছর ধরে। কিন্তু যে বেতন পাই তা দিয়ে খুব ভালো চলে না। তাই ছুটির দিনে এই বাজারে সবজি বিক্রি করি।’ বেচাকেনার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান, সাপ্তাহিক ছুটির দিন ছাড়াও শনিবারে দোকান নিয়ে বসলে মাসে অন্তত সাড়ে তিনশ’ ডলার লাভ থাকে। কোম্পানির কাজ এবং সবজি বিক্রি করে বেশ ভালোই চলে তার।

আলাউদ্দিনের মতো বাংলাদেশি প্রবাসী রশীদ জসীম, নেওয়াজ, শারমিন আক্তার ও নাজমুলও যুক্ত হয়েছেন সবজি ব্যবসার সঙ্গে। লেবাননের বিভিন্ন সবজি খামার থেকে এসব বাংলাদেশিরা টাটকা সবজি কিনে স্থানীয় বাজারে বিক্রি করেন। লাউ, করলা, পুঁইশাক, মুলা, চালকুমড়া থেকে শুরু করে প্রায় সব ধরনের সবজি পাওয়া যায় এই বাজারে।

বাংলাদেশিদের পাশাপাশি ফিলিপাইন এবং নেপালি নারী কর্মীরাও এই বাজারে সবজির ব্যবসা করছেন। মূলত এসব সবজির ক্রেতা বাংলাদেশ, ফিলিপাইন, শ্রীলংকা ও ইন্ডিয়ার প্রবাসীরা।

এক নারী ব্যবসায়ী বলেন, ‘আমরা লেবাননের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কাজ করি। কিন্তু সেখানে বেতন কম পাই। প্রবাসে কাজ করে দেশে পরিবারের প্রয়োজন মেটাতে হিমশিম খেতে হয়। তাই কিছুটা বাড়তি আয়ের জন্য আমরা এখানে সবজি বিক্রি করছি। দাওড়া’র এই অংশে ফিলিপাইনদের সংখ্যা বেশি। তাদের কাছে সবজি বিক্রি করে সপ্তাহের দু’দিনে ৩০ থেকে ৪০ ডলার পর্যন্ত লাভ হয়’।

তবে বিপত্তিও রয়েছে এই ব্যবসায়। ব্যবসা করার আইনগত অনুমতি না থাকায় মাঝে মাঝে দোকানের মালপত্র নিয়ে যায় স্থানীয় পুলিশ। তবে স্থায়ীভাবে এই বাজারে বাংলাদেশি ও ইন্ডিয়ানদের অনেকেই দোকান ভাড়া নিয়ে অন্য পণ্যের সঙ্গে সবজির ব্যবসাও করছেন।

প্রায় দেড় লাখ বাংলাদেশি প্রবাসী অধ্যুষিত লেবাননের এই বাজারে সবজির ব্যবসায় জড়িয়ে আছেন প্রায় এক হাজারেরও বেশি বাংলাদেশি।

More News Of This Category