1. [email protected] : editorpost :
  2. [email protected] : jassemadmin :

গাড়ি চুরি হলে যা করতে হবে!

আমাদের দেশের বর্তমান প্রেক্ষাপটে অনেকেই ব্যক্তিগত গাড়ি কিনছেন। জরুরী প্রয়োজনে নিজস্ব গাড়ি অনেক উপকারে আসে। তবে এ নিয়ে নানা ধরনের বিপত্তিও রয়েছে। যেমন – অভিজ্ঞ ও বিশ্বস্ত ড্রাইভার পাওয়া, গ্যারেজ সমস্যা, রাস্তায় পার্কিং সমস্যা। তবে সবচেয়ে বড় যে সমস্যা সেটি হলো গাড়ি চুরি হয়ে যাওয়া।

অনেক সময় বাসার গ্যারেজ থেকে কিংবা রাস্তার পাশে পার্কিং করা অবস্থাতেই গাড়ি চুরি হয়ে যায়। সারা দেশেই সংঘবদ্ধ চক্র আছে যারা গাড়ি চুরির কাজে নিয়োজিত রয়েছেন। অনেক সময় নিয়োগকৃত ড্রাইভারও গাড়ি চুরি করে পালিয়ে যায়।

এ ধরনের কোনো সমস্যায় পড়লে আপনি আইনের আশ্রয় নিতে পারেন। আপনার গাড়ির যদি কোনো যন্ত্রাংশও চুরি হয় তাহলেও আপনি আইনের আশ্রয় নিতে পারবেন। চলুন জেনে নিই করণীয় কি আপনার:

চুরি যদি আপনার এলাকায় হয়:
আপনার গাড়িটি যে জায়গা থেকে চুরি হবে সেই এলাকার দায়িত্বে নিয়োজিত থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার বরাবর গাড়ি চুরি যাওয়ার একটি লিখিত অভিযোগ করতে হবে। এজন্য থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করে অভিযোগটি করতে পারেন।

যদি মহানগর এলাকায় হয়:
চুরির ঘটনাটি যদি মহানগর এলাকায় হয়, তাহলে আপনি মহানগর ট্রাফিক পুলিশের কাছেও লিখিত আবেদন করতে পারেন। অনেক সময় চুরির ঘটনায় আপনাকে এজাহার দায়েরের মাধ্যমে সরাসরি মামলা করতে হতে পারে। অথবা গাড়ি চুরির বিষয়টি নিয়ে একটি সাধারণ ডায়েরি বা জিডি করে রাখতে পারেন। এজাহারে এবং জিডিতে গাড়ির নম্বর, ঘটনার স্থান, ঘটনার সময় উল্লেখ করতে হয়। এজাহারে যদি সন্দেহভাজন কোনো ব্যক্তি থাকে, তাহলে তার নাম-ঠিকানাও উল্লেখ করতে পারেন।

যদি নিজের চালক চুরি করে পালায়:
অনেক সময় নিয়োজিত ড্রাইভাররাও গাড়ি চুরি করে পালিয়ে যায়। এক্ষেত্রে চালককে যদি সন্দেহ হয়, তাহলে চালকের নাম-ঠিকানাসহ বিস্তারিত উল্লেখ করতে হবে। এজাহার করা হলে একজন তদন্ত কর্মকর্তা আপনার মামলাটির দায়িত্বে থাকবেন। প্রয়োজনে তদন্তকারী কর্মকর্তাকে তদন্তের স্বার্থে আপনি বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করতে পারেন।

“ভেহিকল ট্যাকিং” ব্যবহার:
বর্তমান সময়ে “ভেহিকল ট্যাকিং” নামে নতুন ডিজিটাল নামফলক ব্যবহার করা হচ্ছে। এতে গাড়ির সব তথ্য হালনাগাদ করা থাকে। এ নামফলকের সঙ্গে মুঠোফোনের সিমের মতো ছোট একটি ডিভাইস ব্যবহারের ফলে গাড়িটির অবস্থান কোথায় আছে, তা সহজেই বের করা যায়।

গাড়ির চুরির ঘটনায় গ্রেফতারকৃত আসামীদের আদালতে সোপর্দ করা হলে গাড়ির মালিককে আদালতে সাক্ষী দেওয়ার জন্য হাজির হতে হয়।

More News Of This Category