1. [email protected] : editorpost :
  2. [email protected] : jassemadmin :

এপ্রিল থেকে তিন লাখ বিদেশি কর্মী নেবে জাপান

আগামী বছরের এপ্রিল থেকে তিন লাখেরও বেশি বিদেশি কর্মী নেবে জাপান। দেশটিতে শ্রমিকের চাহিদা পূরণ করার লক্ষ্যে কয়েক লাখ বিদেশি কর্মী নিয়োগ দিতে একটি আইন পাস করেছে জাপানি সংসদ।

এক প্রতিবেদনে যুক্তরাজ্যের গণমাধ্যম বিবিসি জানায়, নতুন এই আইন অনুসারে দেশটির কনস্ট্রাকশন, ফার্মিং ও নার্সিং খাতে নিয়োগ দেয়া হবে এসব বিদেশি কর্মীকে।

তবে এই আইনে নিয়োগপ্রাপ্ত কর্মীরা শোষিত হবে বলে মনে করছে দেশটির বিরোধী দলগুলো। তাদের মতে, বেশি পরিমাণে বিদেশি কর্মী আসায় মজুরি কমে যাবে, যা অভিবাসী শ্রমিক শোষণ ত্বরান্বিত করবে।

জাপানে বিদেশি কর্মী নিয়োগের নতুন এই আইন অনুসারে দুই ক্যাটাগরিতে নিয়োগ দেয়া হবে। প্রথম ক্যাটাগরির কর্মীদের অবশ্যই একটি নির্দিষ্ট মাত্রার দক্ষতা থাকতে হবে এবং জাপানি ভাষা জানতে হবে। তাদেরকে পাঁচ বছরের জন্য নিয়োগ দেয়া হবে। অন্যদিকে দ্বিতীয় ক্যাটাগরির কর্মীদের অবশ্যই উচ্চ দক্ষতা সম্পন্ন হতে হবে। আর তারা সেখানে আবাসিকভাবে থাকার অনুমতি চেয়ে আবেদন করতে পারবে।

বিবিসির টোকিও প্রতিনিধি রুপার্ট উইংফিল্ড-হায়েস বলেছেন, কম-দক্ষ বিদেশি কর্মীদেরকে টেকনিক্যাল প্রশিক্ষণ দিতে চলমান কর্মসূচি সবার জন্য উন্মুক্ত আছে। এই সুযোগটি কাজে লাগাতে পারে অসাধু মালিকরা।

বেশিরভাগ জাপানি জাতিগত একতায় বিশ্বাসী বলে দেশটিতে অভিবাসন নিষিদ্ধ। কিন্তু দেশটির জনসংখ্যা কমে যাওয়ায় এবং জনসংখ্যার বেশির ভাগই বয়স্ক হওয়ায় বিভিন্ন সেক্টরে শ্রমিকের ঘাটতি দেখা দিয়েছে।

তাই অনেকদিন থেকেই জাপানি ব্যবসায়ীরা বিদেশি কর্মী নিয়োগ দিতে দেশটির অভিবাসন নীতিমালা পরিবর্তন করার আহ্বান জানিয়েছে আসছেন। কিন্তু বিদেশি কর্মী নিয়োগ দিতে বাধ্য হলেও উল্লেখ করার মতো বিষয় হলো দেশটি শ্রমিকের পেশাদারিত্ব ও দক্ষতাকেই বেশি প্রাধান্য দিচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে জোর দিয়ে বলেছেন, প্রস্তাবিত আইনটি চূড়ান্ত অভিবাসন নীতি নয়। দক্ষ কর্মীদেরকেই নিয়োগ দেবে, যারা এখানে শ্রমিকের চাহিদা পূরণ করতে প্রথম থেকেই দক্ষতার সঙ্গে কাজ করতে পারবে। আর যে ক্ষেত্রগুলোতে কর্মী প্রয়োজন, শুধু সেগুলোই বিদেশিদেরকে নিয়োগ দেয়া হবে।

More News Of This Category